১ বছর নিষিদ্ধ হতে পারেন শাহাদাত

0
20

আবারও বিতর্কে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীব। এবার জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) ম্যাচ চলাকালীন সতীর্থ ক্রিকেটারকে মারধর করে আলোচনায় তিনি।

চলতি এনসিএলে ঢাকা বিভাগের হয়ে খেলছেন শাহাদাত। ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডের ম্যাচে খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় সতীর্থ মোহাম্মদ আরাফাতের গায়ে হাত তুলেন তিনি। চড়-থাপ্পড়, কিলঘুষির সঙ্গে তাকে লাথিও মারেন ৩৩ বছর বয়সী এ পেসার।

এরই মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) লিখিতভাবে বিষয়টি জানিয়েছেন ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ শিপার। সেই রিপোর্ট দেখার পর শাস্তির সিদ্ধান্ত নেবে দেশের ক্রিকেট সংস্থা। সেটি কমপক্ষে এক বছর হতে পারে বলে মনে করছেন রেফারি।

আখতার আহমেদ বলেন, ম্যাচ রেফারি হিসেবে প্রতিবেদনে যা লেখার লিখেছি। ইতিমধ্যে সেটি বোর্ডে জমা দিয়েছি। এ কাণ্ডের জন্য শাহাদাতকে শাস্তি দেয়ার এখতিয়ার আমার নেই। এটি লেভেল ৪-এর আওতায় পড়ে। এ শাস্তি অনেক কঠিন ও বড়।

তিনি বলেন, এটি তেড়ে যাওয়া, বাজে অঙ্গভঙ্গি কিংবা গালি দেয়ার মতো ছোটখাটো ঘটনা নয়। সরাসরি গায়ে হাত তোলা। এর শাস্তি কঠিন। আইনে ন্যূনতম এক বছর নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ আছে। সার্বিক রিপোর্ট বিসিবিতে পাঠিয়েছি। ঘটনার সাক্ষ্যপ্রমাণ ও যাচাই-বাছাইয়ের পর বোর্ডই শাস্তি দেবে। আমি যেটি বলছি, সেটি নাও হতে পারে।

এমন ঘটনায় এক বছর শাস্তির কথা আইনে আছে। ম্যাচ রেফারিও বলেছেন নিষেধাজ্ঞা কমপক্ষে এক বছর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই এটি ধরেই নেয়া যায়। তবে শাহাদাতের বিরুদ্ধে আগেও অভিযোগ ছিল। সেদিক বিবেচনায় আরও হার্ডলাইনে যেতে পারে বোর্ড।